1. taskin.anas@gmail.com : দ্যা ঢাকা প্রেস : দ্যা ঢাকা প্রেস
  2. raselripe@gmail.com : Rasel Ahmed : Rasel Ahmed
  3. mdkawsar8297@gmail.com : দ্যা ঢাকা প্রেস : দ্যা ঢাকা প্রেস
বজ্রপাতে মৃত তরুণের লাশ চুরির ভয়ে ৫ দিন ধরে পাহারায় স্বজনরা — The Dhaka Press
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৫:২২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
প্রধান খবর
স্যাম অল্টম্যানকে বরখাস্ত করায় বোর্ডের পদত্যাগ দাবি করেছে ওপেনএআই স্টাফ স্যাম অল্টম্যান যোগ দিচ্ছেন মাইক্রোসফটে দাম কমলো সোনার বাংলাদেশে আইইএলটিএসর ‘ওয়ান স্কিল রিটেক’ চালু নিজস্ব প্রতিবেদক মুকেশ আম্বানির উত্তরাধিকার, রিলায়েন্সের পর্ষদে নিয়োগ পেলো তিন সন্তান ঢাবিতে শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের প্রফেশনাল মাস্টার্সে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত নতুন বছরের শুরুতেই কেন ইলন মাস্ক হারালেন ২০০ বিলিয়ন ডলার? যেভাবে ভ্রমণ করবেন ঢাকা-কলকাতার রুটে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে  স্মার্টফোন নির্দিষ্ট সময়ে বন্ধ করবেন যেভাবে গ্রামীণফোনের স্কিটো হ্যাকাথনে বিজয়ী ‘সার্কিট ব্রোকার্স’

বজ্রপাতে মৃত তরুণের লাশ চুরির ভয়ে ৫ দিন ধরে পাহারায় স্বজনরা

  • রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১১১ বার পড়া হয়েছে

গত ১ সেপ্টেম্বর বজ্রপাতে মারা যান এইচএসসি পরীক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম। স্বজনদের ধারনা, কবিরাজী মতে বজ্রপাতে মারা যাওয়া অবিবাহিত এই তরুণের মাথা অনেক দামি। তবে কোথা থেকে তাদের এই ধারনার উদ্রেক তার কোনো সূত্র পাওয়া যায়নি। তাই লাশ চুরি ঠেকাতে গত পাঁচদিন ধরে কবর পাহারা দিচ্ছেন স্বজনরা। কবর থেকে ১০ গজ দূরে তাঁবু টানিয়ে দিনরাত পালি করে চলছে কবরে কঠোর নজরদারী। পাহারায় থাকা ব্যক্তিদের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে চা নাস্তারও। নিহত আরিফুল ইসলামের বাবার বাড়ী কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কুমোরপুর কদমেরতল গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। শনিবার দুপুরে উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের ঘোগারকুটি গ্রামে গেলে দেখা মেলে এমন দৃশ্যের। বজ্রপাতে মৃত ওই কলেজছাত্রের বাবা শহিদুল ইসলাম, মামা মফিজুল হক, মামি কুলসুম বেগম ও স্থানীয় আশরাফুল ও আনছারী আলী জানালেন, লাশ চুরি ঠেকাতে তারা তিন মাস এভাবে পাহারা দেবেন। নিহত আরিফুল ফুলবাড়ী ডিগ্রীকলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিল । সে শিশু বয়স থেকেই নানা বাড়িতে থেকে পড়াশুনা করতো। নানাবাড়ি থেকে তিনশ গজ দূরে মায়ের কেনা জমিতেই তার মরদেহ দাফন করা হয়। নিহত আরিফুল ইসলামের মামা মফিজুল হক ও মামি কুলসুম বেগম জানান, ভাগ্নে আরিফুল আমাদের অনেক আদরের ছিল। ছোট থেকে আরিফুলের মা রাহিলা বেগমসহ তার তিন ছেলেমেয়েকে বাড়িতে নিয়ে দেখাশোনা করেছি। বর্তমানে আরিফুলের মা রাহিলা বেগম জর্ডানে রয়েছেন। আরিফুলের বাবা-মা পাশে না থাকলেও তিন ভাইবোনকে আমরা আদরা করতাম। এর মধ্যে আরিফুল হঠাৎ বজ্রপাতে মারা যায়। বজ্রপাতে নিহত ব্যক্তির লাশের মাথা কবিরাজী শাস্ত্রে না কি অনেক মূল্যবান । সে জন্য লাশটি চুরির আশঙ্কায় আমরা রাতদিন ভাগিনার কবর পাহারা দিচ্ছি। তবে এমন খবর জানা নেই বড়ভিটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খয়বর আলীর। এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, বজ্রপাতে নিহত ব্যক্তির কঙ্কালে কোনো মূল্যবান জিনিস থাকতে পারে না। এটা কুসংস্কার ও অযৌক্তিক। বজ্রপাতের সঙ্গে নিহত ব্যক্তির কঙ্কালের কোনো সম্পর্ক নেই। বজ্রপাতে নিহত ব্যক্তির কঙ্কালে মুল্যবান কিছু আছে তা সম্পুর্ণ ভুল ধারনা ।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

office

34 nawab mansion dhanmondi dhaka

Contact

Email: tdpnewsroom@gmail.com

contact:01979899122

© All rights reserved 2020 thedhakapress

প্রযুক্তি ও কারিগরি সহায়তাঃ WhatHappen